চাক্‌মা বর্ণ ও ভাষা উন্নয়ন ও গবেষণা নিয়ে হিল এডু কর্তৃপক্ষের বর্তমান কার্যক্রম, উদ্যোগ

Print Friendly

 

চাক্‌মা বর্ণ ও ভাষা উন্নয়ন ও গবেষণা নিয়ে হিল এডু কর্তৃপক্ষের বর্তমান কার্যক্রম, উদ্যোগ

ভূমিকাঃ– বিশাল স্বপ্ন নিয়ে গত ২১ শে ফেব্রুয়ারী ২০১১ তারিখে প্রথম ও একমাত্র  চাক্‌মা বর্ণ ও ভাষা নিয়ে গবেষণা মূলক ওয়েবসাইট  হিলএডু ডট কম  (hilledu.com) ওয়েবে পদার্পণ করছে। অনেক বাঁধা-বিঘ্ন উপেক্ষা করে হিল এডু সঞ্চালক গণ আজ পর্যন্ত নিঃস্বার্থভাবে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।  এবার একটু প্রারম্ভিক আলোচনায় আসি, হিলএডু ওয়েবসাইটটি প্রথমে কালচার (Culture) একটি সাবডোমেইনে চালু করা হয়েছিল। সেই সাব ডোমেইনটি নিয়ে প্রায় দুই/তিন মাস কাজ করা হয়েছিল এবং অতি দ্রুত অনেক জনপ্রিয়তা ও লাভ করে।  বিভিন্ন জনের পরামর্শে সুজ মরিজ দার সাথে আলোচনা করে মূল ডোমেইন কেনার সিদ্ধান্ত নিলাম। নাম দিলাম হিলএডু ডট কম  (hilledu.com). ডোমেইনটি অর্ডার এবং চালু করা হয়েছে।

 

 

পূর্বের কথাঃ- গত ২০ শে ফেব্রুয়ারী ২০১১ তারিখে। আমরা সিদ্ধান্ত নিলাম বিশ্ব মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে সাইটটি  ২১ শে ফেব্রুয়ারী ২০১১ তারিখে ওয়েবে পদার্পণ করবো। কিন্তু হাতে সময় আছে মাত্র একদিন, চিন্তায় পড়ে গেলাম, একদিনে একটি সাইট তৈরি করা কিভাবে সম্ভব? তারপর ও বুকে সাহস নিয়ে গত ২০ শে ফেব্রুয়ারী ২০১১ তারিখে রাত ১০ টায় দু জন দু দিক থেকে (আমি ঢাকায় এবং সুজ মরিজ দা নঁওগায়) সাবডোমেইনটির সমস্ত ডাটা এক একটি করে আপলোড করা শুরু করলাম। সেই সাথে সাইটটি সাজানোর কাজ ও শুরু করলাম। দীর্ঘ ৫ ঘন্টা কাজ করে গত ২১ শে ফেব্রুয়ারী ২০২১ তারিখে শেষ প্রহর ৪টায় কাজ শেষ করে সাইটটি হোম পেইজে তিন থেকে চারটি পোস্ট নিয়ে    ওয়েবে পদার্পণ করা সম্ভব হলো। জীবিত হলো ওয়েবে চাক্‌মা ভাষার নতুন পদযাত্রা।

 

যা সমাপ্ত করেছিঃ– আমরা সর্বপ্রথম চাক্‌মা বর্ণমালায় বিভিন্ন পুস্তক লিখতে গিয়ে চাক্‌মা ফন্ট নিয়ে বিভিন্ন সমস্যায় সম্মুখীন হয়েছিলাম। প্রথমদিকে অনেক জনের কাছে থেকে চাক্‌মা ফন্টের ব্যাপারে জিজ্ঞাসা এবং খোঁজ নিয়েছি। অনেকে তিরস্কার করে বলেছে “এই কাজ করে কি লাভ, এটি কি তোমাকে ভাত-কাপড় বা চাকরি দেবে? অনেকে আবার উৎসাহ প্রদান করেছে। সেই উৎসাহ থেকে নিজস্ব উদ্যোগে চাক্‌মা বর্ণমালায় ফন্ট তৈরি পরিকল্পনা করে। কিন্তু ফন্ট তৈরি করতে গিয়ে দেখালাম ফন্ট তৈরির সফটওয়্যার এর দাম প্রচুর, যা আমাদের পক্ষে ক্রয় করা দুষ্কর। পরবর্তীতে কিছ টাকা জমিয়ে সফটওয়্যারটি কিনে নিই। শুরু হয় ফন্ট তৈরির কাজ। ফন্ট তৈরিতে সুজ মরিজ দা কি অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন তা আমার জানা। প্রথম ধাপে পর পর তিনটি চাক্‌মা ফন্ট তৈরি করা হয়। সেগুলো হলো-

১। BivuNabaKhama

২। BivutiChakmaDhanno

৩। SuzMoriz(Bivu) নামে ফন্ট তৈরি করা হয়।

 

উক্ত ফন্ট সমূহে কিছু ত্রুটি থাকার কারণে BivuNabaKhamaC নামে Upgrade ফন্ট তৈরি করা হয়। আমাদের চিন্তা ভাবনা ছিলো উক্ত ফন্ট সমূহ পৃথিবীর সকল দেশে বসবাসরত চাক্‌মাগণ যাতে সহজে এবং মুক্তভাবে ব্যবহার করতে পারে। আমরা আশা করি এতে করে চাকমা ভাষা ও বর্ণপ্রেমী অনেকে উপকৃত হবেন।

 

 

আমি আর সুজ মরিজ দা মিলে হিলএডু ডট কম ওয়েবসাইটে বিভিন্ন সময়ে রাতের পর রাত জেগে চাক্‌মা বর্ণমালা শিক্ষার জন্য চাক্‌মা ফন্ট কিভাবে কম্পিউটারে ইনস্টল, সেটিংস এবং ব্যবহার করতে হয় তার নির্দেশিকা সহ বিভিন্ন টিউটোরিয়াল ডাউনলোড (http://hilledu.com/download-fonts/ ) উপযোগী করে ওয়েবসাইটে প্রকাশ করি। পরে আরো চাক্‌মা ভাষায় বিভিন্ন ওয়ার্ডবুক এবং চাক্‌মা বর্ণমালা শিক্ষার জন্য পাজেত্তারা নামে একটি ভাষা শিক্ষা ই-বই ডাউনলোড (http://hilledu.com/download-chakma-books/) এর ব্যবস্থা করি। পাজেত্তারা নামে এ ভাষা শিক্ষা বইটি বনযোগীছড়া কিশোর-কিশোরী কল্যাণ সমিতির সহায়তায় ২০০ কপি বই প্রকাশ করি।

 

আমি বর্তমানে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে কম্পিউটার সাইন্স বিভাগে শেষ বর্ষের ছাত্র।  ওয়েবসাইট সমূহ  চালাতে এবং উচ্চ গতি সম্পন্ন ইন্টার্নেট বিল পরিশোধ করতে গিয়ে বিভিন্ন সময় আর্থিক সমস্যায় সম্মূখীন হতে হয়েছে। এহেন অবস্থায় আমি একদিন সিদ্ধান্ত নিলাম আমাদের ওয়েবসাইট সমূহের কার্যক্রন সম্পূর্ণভাবে বন্ধ করে দেবো। আমাদের দূরাবস্থার কথা জেনে নির্দিষ্ট কিছু ব্যক্তি সহায়তার হাত বাড়ালো।  তখন  কিছুটা উৎসাহ, প্রেরণা এবং কাজ করার আগ্রহ বৃদ্ধি পেল।

 

এভাবে কয়েকমাস চলার পর কবি মৃত্তিকা চাক্‌মা এবং খাগড়াছড়ি ক্ষুঃ নৃঃ সাঃ ইঃ এর পরিচালক সুসময় চাক্‌মার সাথে পরিচয় হয়। পরিচালক সুসময় চাকমার নির্দেশে আমাদের সাইট দুটি (www.hilledu.com/ & www.hillbd.com/ ) অবকাঠামো সম্পুর্ণরুপে পরিবর্তন করা হয়েছে। আমাদের উদ্যোগে (বিশেষ করে সুজ মরিজ দা) কবি মৃত্তিকা চাক্‌মার “মেঘ সেরে মোনো চুগ” নামে কাব্য গ্রন্থটি চাক্‌মা বর্ণমালায় কম্পোজ করার সহায়তা করি এবং কবি মৃত্তিকা চাক্‌মার নির্দেশনা অনুযায়ী সুজ মরিজ দা চাক্‌মা ফন্টটি উন্নয়ন করা হয়।

 

গত ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১২ তারিখে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ইনস্টিটিউট, রাঙ্গামাটি আয়োজনে Ribeng IT Solution এর সহায়তায় চাক্‌মা বর্ণমালা ফন্ট তৈরির শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত কর্মশালায় উপস্থিতবৃন্দ-

১। রুনেল চাক্‌মা, পরিচালক, ক্ষুঃ নৃঃ সাঃ ইঃ, রাংগামাটি

২। সুগত চাকমা (নোনাধন), প্রাক্তন পরিচালক, উঃসাঃ ইঃ, রাংগামাটি

৩। সুসময় চাকমা, পরিচালক, ক্ষুঃ নৃঃ সাঃ ইঃ, খাগড়াছড়ি

৪। কীর্তিময় চাক্‌মা, সদস্য, বাংলাদেশ চাক্‌মা ল্যাংগুয়েজ কাউন্সিল

৫। প্রসন্ন কুমার চাক্‌মা, সদস্য, বাংলাদেশ চাক্‌মা ল্যাংগুয়েজ কাউন্সিল

৬। হরি কিশোর চাক্‌মা, সাংবাদিক-দৈনিক প্রথম আলো

৭। আর্য মিত্র চাক্‌মা, শিক্ষক-খাগড়াছড়ি সরকারী উচ্ছ বিদ্যালয়)

৮। কবি মৃত্তিকা চাক্‌মা, শিক্ষক-মোনঘর শিশু সদন)

৯। শুভ্র জ্যোতি চাক্‌মা,রিচার্চ অফিসার, ক্ষুঃ নৃঃ সাঃ ইঃ, রাংগামাটি

১০। শ্রদ্ধালংকার মহাস্থবির, মোনঘর শিশু সদন)

১১। জ্যোতি চাক্‌মা, রিবেং আইটি সল্যুশন কর্তৃপক্ষ)

১২। সুজ মরিজ চাক্‌মা, রিবেং আইটি সল্যুশন কর্তৃপক্ষ)

 

রাঙ্গামাটি ক্ষুঃনৃঃইঃ এ রিবেং আইটি সল্যুশন কর্তৃক সহায়তায় তৈরিকৃত চাক্‌মা ফন্টটি নাম “আলাম” (ALAAM) নাম রাখা হয়েছে। ফন্টটির প্রথম সংস্করণ “alaam 1.12”

Share This Post

Post Comment

Please Answer.. * Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.